SEO Bangla Tutorial – এসইও কত প্রকার ও কি কি? – পর্ব ২

গত পর্বে আমরা “seo bangla”-টপিকে এসইও এর মানে কি ও কিভাবে এস ই ও কাজ করে ইত্যাদি জেনেছি। আজকে আমরা SEO-এর কত প্রকার ও বিভিন্ন প্রকারভেদ সম্পর্কে জানব এবং এর সঠিক ব্যবহার নিয়ে আলোচনা করব। আমরা গত পর্বে জেনেছি ধারাবাহিক ভাবে “seo bangla tutorial”-চলতে থাকবে। আপনি যদি আমাদের আগের এসইও বাংলা টিউটোরিয়াল না দেখে থাকেন তাহলে এখানে ক্লিক করুন। আমরা অনেকেই শুনেছি এসইও শিখে অনলাইনে আয় করে নিজের ক্যারিয়ার গড়া যায়।

এসইও করার ক্ষেত্রে “on page seo”, “off page seo” খুবই গুরুত্বপূর্ণ যা অনেকেই জানে কীভাবে এগুলো কাজ করে। তাহলে চলুন আমরা জেনে নেই এসইও এর বিভিন্ন প্রকারভেদ সম্পর্কে।

এসইও কত প্রকার ও কী কী? – SEO Bangla Tutorial

এসইও সাধারণত ২ প্রকার যথা,

  1. অন পেজ এসইও (On Page SEO)
  2. অফ পেজ এসইও (Off Page SEO)

অন পেজ এসইও – প্রতিটি ওয়েবসাইট সার্চ ইঞ্জিনে ইন্ডেক্স করানোর জন্য অনপেজ এসইও খুব গুরুত্বপূর্ণ। কোনো ওয়েবসাইটের কনটেন্ট সার্চ ইঞ্জিনে নিয়ে আসার জন্য যে কার্যকলাপ করা হয় তাকে অন পেজ এস ই ও বলে।

On Page SEO-না করলে কোনো ভাবেই সাইট সার্চ ইঞ্জিনে নিয়ে আসা যাবে না। আপনি সাইটে কোনো কনটেন্ট পাবলিশ করলে সেটা Search Engine-এ খুঁজে পাবেন না যদি অন পেজ এসইও না করেন।

ভালো মানের কনটেন্ট তৈরি করে কীওয়ার্ড যুক্ত করতে পারলে সাইট খুব দ্রুত র‍্যাংক হবে। আপনার সাইটে ভাল মানের কীওয়ার্ড অধিভুক্ত করতে পারলে বেশি ভিজিটর পাবেন এবং সাইট সার্চ ইঞ্জিনে র‍্যাংকিং ধরে রাখবে।

অফ পেজ এসইও – ওয়েবসাইট সার্চ ইঞ্জিনে র‍্যাংক ধরে রাখার জন্য ওয়েবসাইটের বাইরে যে কাজগুলো করা হয় তাকে অফ পেজ এস ই ও বলে।

বিভিন্ন বড় বড় র‍্যাংক করা সাইটের সাথে নিজের ওয়েবসাইটের সাথে কানেক্ট করাই হচ্ছে অফ পেজের একটি কাজ। Off Page SEO-করার ক্ষেত্রে ব্যাকলিংক অনেক বড় ভূমিকা পালন করে।

ব্যাকলিংক হচ্ছে কোনো সাইটের সাথে নিজের সাইটের সংযুক্ত করা। বিভিন্ন ভাবে ওয়েবসাইটের প্রচার-প্রচারণা করাই হচ্ছে অফ পেজ এসইও।

সাইট যেন সার্চ ইঞ্জিনে প্রথম স্থান ধরে রাখতে পারে বা সাইটে যেন বেশি ভিজিটর আসে এর জন্য অফ পেজ এসইও করা হয়।

এসইও এর বিভিন্ন প্রকারভেদ

এসইও-করে-আয়

এসইও করার ক্ষেত্রে আরো দুই ভাবে এসইও-কে ভাগ করা যায় যথা,

  1. পেইড এসইও (Paid SEO)
  2. অরগানিক এসইও (Organic SEO)

পেইড এসইও – যখন কেউ অর্থ বা মূল্য দিয়ে কোনো সার্চ ইঞ্জিনে এসইও করে তাকে পেইড এসইও বলা হয়। আপনি বিভিন্ন সার্চ ইঞ্জিনে প্রবেশ করে যদি কোনো কিছু লিখে সার্চ করেন তাহলে অনেক সময় দেখবেন সার্চ রেজাল্টের পাশে ADS-লেখাটি দেখা যায় আর সেটা হচ্ছে পেইড এসইওর একটি অংশ।

এই পেইড এসইও গুলো তারাই করে যারা অরগানিক এসইও করে সার্চ ইঞ্জিনে প্রথম পেজে আসতে পারে না। আবার অনেকে আছে যারা মার্কেটিং করার জন্য Paid SEO-করে থাকে। এর ফলে ভাল ভিজিটর পাওয়া যায় এবং পণ্যের প্রচার-প্রচারণা বৃদ্ধি করা যায়।

অরগানিক এসইও – কোনো সার্চ ইঞ্জিনকে অর্থ বা মূল্য না দিয়ে যে এস ই ও করা হয় তাকে Organic SEO-বলে। এই এসইও সাধারণত নিজের সৃজনশীল মেধাশক্তিকে কাজে লাগিয়ে করে থাকে।

আরো পড়ুন-

অরগানিক এসইও করার ক্ষেত্রে কোনো সার্চ ইঞ্জিনের প্রথম পেইজে আসার জন্য অর্থের প্রয়োজন পরে না বরং ভালো মানের কীওয়ার্ড দিয়ে এসইও করে Search engine-এর প্রথম পেজে আসতে হয়।

সবচেয়ে বেশি অরগানিক এসইও করা হয় কারণ এটা খুব সহজ এবং কোনো মূল্য দিতে হয় না।

আপনি যখন এস ইও শিখবেন এবং এসইও-এর কাজ শুরু করবেন তখন আপনার অর্গানিক এসইও করার প্রয়োজন হবে। Organic SEO-আবার ৩ ধরণের হয়ে থাকে যেমনঃ ব্ল্যাক হ্যাট এসইও, হোয়াইট হ্যাট এসইও এবং গ্রে হ্যাট এসইও।

এখন আপনি হয়তো এই এস ই ও গুলোর সম্পর্কে জানেন না, হয়তো ভাবছেন এগুলো আবার কেমন এসইও? তাহলে চলুন জেনে নেই এই এসইও গুলোর সম্পর্কে –

১। ব্ল্যাক হ্যাট এসইও – সার্চ ইঞ্জিনের নিয়ম কানুন না মেনে অবৈধ ভাবে সাইট র‍্যাংক করার জন্য যে কাজগুলো করা হয় তাকে ব্ল্যাক হ্যাট এসইও বলা হয়।

ইন্টারনেটে আপনি অনেক লেখা দেখতে পারবেন যেগুলোতে বলা থাকে একটা এবং ক্লিক করে প্রবেশ করলে দেখা যায় অন্যকিছু আর সেটাই হচ্ছে Black Hat SEO ।

এইসব অস্বাভাবিক ভাবে ওয়েবসাইটে ভিজিটর নিয়ে আসার কারণ হচ্ছে সাইট সার্চ ইঞ্জিনে র‍্যাংকিং ধরে রাখা। আর এইসব অবৈধ ভাবে ভিজিটর আনলে কোনো এক সময় Search engine-থেকে ওয়েবসাইট ব্লক করে দেওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

যারা এইসব এস ইও করে থাকে সাময়িক সময়ের জন্য সাইট রাংক হলেও এক সময় সম্পূর্ণ ভাবে সাইট ডাউন হয়ে যায়। তাই আমি বলব এই সব খারাপ কাজ থেকে বিরত থাকুন।

আরো পড়ুন-

২। হোয়াইট হ্যাট এসইও – আপনি হয়তো বুঝে গেছেন হোয়াইট হ্যাট এসইও কি হতে পারে। সার্চ ইঞ্জিনের নিয়ম কানুন মেনে নিয়ে বৈধ ভাবে কাজ করাই হচ্ছে White Hat SEO ।

এই এসইও করার মূল উদ্দেশ্য থাকে জনগণের কল্যণের জন্য সাইট তৈরি করা বা এসইও করা। আপনি যত ভাল কনটেন্ট সাইটে পাবলিশ করবেন মানুষ তত দেখবে, শেয়ার করবে এবং সার্চ ইঞ্জিনে অটোমেটিক র‍্যাংকিং হবে। এর জন্য আপনার আলাদা ভাবে কোনো কাজ করতে হবে না।

তাই ভাল কনটেন্ট সাইটে পাবলিশ করে ভিজিটর নিয়ে আশুন কোনো অবৈধ ভাবে কাজ করে নয়। আপনি হোয়াইট হ্যাট এসইও করে সাইট র‍্যাংকে নিয়ে আসতে পারলে সাইট কখনো ডাউন হবে না র‍্যাংকিং ধরে রাখবে।

৩। গ্রে হ্যাট এসইও – এসইওর মধ্যে Gray Hat SEO-ব্যবহার করার শিকার হয় সবচেয়ে বেশি। কারণ গ্রে হ্যাট এস ইও দুইটা মিলে তৈরি হয় অর্থাৎ সার্চ ইঞ্জিনের কিছু নিয়ম কানুন মেনে নিয়ে মাঝে মাঝে অবৈধ কাজ করে seo করাই হচ্ছে গ্রে হ্যাট এসইও।

সার্চ ইঞ্জিনের সকল ধরণের নিয়ম কানুন মেনে নেওয়াটা অনেক কঠিন হয় যায় যার জন্য মানুষ কিছুটা নিয়মের বাহিরে কাজ করে।

আর এই ভাবে এস ইও করাই হচ্ছে গ্রে হ্যাট এসইও কিন্তু আপনি হোয়াইট হ্যাট এসইও করার চেষ্টা করবেন কারণ এটা সবচেয়ে নিরাপদ।

আপনি যদি হোয়াইট হ্যাট এসইও করে সাইট র‍্যাংকিং ধরে রাখতে পারেন তাহলে আপনার গ্রে হ্যাট এসইও করার কোনো প্রয়োজন নেই।

আরো পড়ুন-

White Hat SEO-অনেক মূল্যবান একটি বিষয় তাই আপনি চেষ্টা করবেন সার্চ ইঞ্জিনের নিয়ম কানুন মেনে কাজ করতে।

“SEO Bangla Tutorial”-এর আজকের পর্ব এ পর্যন্তই। পরবর্তী পর্বে আমরা আরো নতুন কিছু শেখার চেষ্টা করব। আজকের এই পর্বে কোথাও বুঝতে সমস্যা হলে আমাকে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

অথবা আমাদের ফেসবুক পেজে ম্যাসেজ করতে পারেন। এছাড়া নতুন কোনো টপিক নিয়ে টিউটোরিয়াল প্রয়োজন হলে আমাদের জানাতে পারেন।

মনে রাখবেন এসইও সম্পর্কে বিস্তারিত না জানতে পারলে এসইও শিখতে পারবেন না, তাই আমি বেসিক থেকে অ্যাডভান্সের দিকে যাচ্ছি।

এতে Bangla SEO-শেখার সময় আপনাদের কাছে সব কিছু অনেক সহজ মনে হবে। আর্টিকেলটি ভালো লাগলে শেয়ার করবেন এবং ফেসবুকে সকল ধরণের আপডেট পেতে ফেসবুক পেজে লাইক দিন। ধন্যবাদ!

আপনার কাছে পোষ্ট টি কেমন লেগেছে সংক্ষেপে কমেন্টেস করে জানাবেন ৷ T=(Thanks) V= (Very good) E= (Excellent) আপনাদের কমেন্ট দেখলে আরো ভালো ভালো পোষ্ট দিতে উৎসাহ পাই।

About SM Simol

আমি সিমুল, বিশ্ববিদ্যালয় পড়াশোনা করি ও এর পাশাপাশি আমি একজন আর্টিকেল রাইটার। বিভিন্ন বিষয় নিয়ে এই সাইটে ব্লগ পোস্ট পাবলিশ করি ও "BanglaAdvice.Com"-সাইটের (এডমিন) আমি। আমার সৃজনশীল মেধাশক্তিকে কাজ লাগিয়ে আর্টিকেল তৈরি করে থাকি এবং বিভিন্ন সাইট এর আলোচিত খবর গুলো প্রকাশ করে থাকি ।

Check Also

এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করার উপায়

এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করবেন কিভাবে? [ অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি ]

অনলাইনে মার্কেটিং করার জন্য ডিজিটাল মার্কেটিং এর অন্তর্ভুক্ত এফিলিয়েট মার্কেটিং (Affiliate Marketing)-অনেক জনপ্রিয়। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *