Wednesday , 21 October, 2020

আমির খানের দেহরক্ষী ছিলাম: রনিত রায়

অভিনেতা রনিত রায়। হিন্দি টিভি ধারাবাহিক কিংবা বলিউড সিনেমা দু’টোতেই অভিনয় করে নিজের প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছেন। কিন্তু অনেকেই হয়তো জানেন না, অনেক সংগ্রাম করেই আজকের অবস্থানে তিনি। এমনকি অভিনেতা আমির খানের দেহরক্ষীর কাজও করেছেন এই অভিনেতা।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে রনিত রায় বলেন, ‘আমার সৌভাগ্য যে, আমির খানের সঙ্গে দুই বছর থাকার সুযোগ পেয়েছি। আমি তার দেহরক্ষী ছিলাম। আমার প্রতিষ্ঠান চালু করেছিলাম কারণ কোনো কাজ ছিল না। খুবই ভাগ্যবান আমির খানের সঙ্গে সময় কাটাতে পেরেছি এবং অধ্যাবসায় ও কাজের প্রতি আগ্রহের বিষয়টি শিখতে পেরেছি। অনেক ক্ষেত্রেই আমির আমার সামনে চলার অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন।’

‘আদালত’ টিভি শোয়ে কেডি পাঠক চরিত্রে অভিনয় করে বিশেষ জনপ্রিয়তা পেয়েছেন এই অভিনেতা। তিনি বলেন, ‘আমি তারকা হতে চেয়েছিলাম। আমি মনে করেছিলাম আমার অভিনেতা হওয়ার ইচ্ছা, কিন্তু ১৫ বছর আগে বুঝতে পেরেছিলাম, তারকা হওয়ার জন্য মুম্বাইয়ে এসেছিলাম। আমার বড় গাড়ি থাকবে, মেয়েরা আমার নাম ধরে চিৎকার করবে। এরপর আমি ব্যর্থতার স্বাদ পেলাম। সবকিছু ভালোর জন্যই হয়। ৫-৬ বছর আমার কোনো কাজ ছিল না। পরবর্তী সময়ে বুঝতে পারলাম, অভিনেতা হওয়ার সঙ্গে তারকাখ্যাতির কোনো সম্পর্ক নেই।’

এই অভিনেতা বলেন, ‘আমির আমার চোখ খুলে দিয়েছিলেন। গাড়ি, বাড়ির চিন্তা বাদ দিয়েছিলাম। অভিনয় দক্ষতা বাড়ানোর ব্যাপারে জোর দিতে থাকি। এই সময় একতা কাপুরের সঙ্গে পরিচয় হয়। দু’টি জনপ্রিয় শোয়ে অভিনয় করি। তারপর থেকে শুধুই শিখছি এবং এখনো তা অব্যাহত আছে।’

তাকে নিয়ে সমালোচনার বিষয়ে এই অভিনেতা বলেন, ‘আমার ম্যানেজার একবার বলেছিলেন, আমরা কেন রনিত রায়কে কাস্টিং করব? জুনিয়র আর্টিস্টরাও তার চেয়ে ভালো। আমি তখন বিষয়টি বুঝতে পারিনি। এখন আমি সেটি বুঝি, তিনি কী বোঝাতে চেয়েছেন। এটি আমাকে কষ্ট দিয়েছে ঠিকই কিন্তু তিনি আমার অনেক বড় উপকার করেছেন। দুই বছর আগে এই মানুষটিই আমাকে তার সিনেমায় অভিনয়ের জন্য প্রস্তাব দিয়েছে এবং আমি প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলাম কারণ সিনেমাটি ভালো ছিল না।’

About Lipu Chowdhury

Check Also

বিয়ে হয়েছে অনেক বছর কিন্তু সন্তান হয়নি, দম্পতি জানতই না এর জন‍্য শা*রীরিক মি*লন দরকার!

বিয়ের পর বেশ কয়েক বছর কেটে গিয়েছে তাদের। সব স্বামী-স্ত্রী মতোনই তারা দুজনেই চান তাদের ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *